জাপান কাহিনি Free download ´ PDF DOC TXT or eBook

Read জাপান কাহিনি

জাপান কাহিনি Free download ´ PDF, DOC, TXT or eBook ↠ Best PDF Epub, জাপান কাহিনি Author Ashir Ahmed This is very good and a main topic to read, the readers are very amazed and always take inspiration from the contents of the book.Y amazed and always take inspiration from the contents of the boo. He made me fall in love with Japan with his humor and beautiful observation power

Ashir Ahmed ñ 0 characters

Best PDF Epub জাপান কাহিনি Author Ashir Ahm. জাপান নিয়ে যদি আপনার আগ্রহ থেকে থাকেযেমনটা আমার আছে যদি জাপানে স্থায়ী কিংবা কিয়দাংশ সময় কাটানোর ইচ্ছে থেকে থাকেযেমনটা আমার আছে তাহলে বোধ করি বইটা আপনার ভালো লাগবে। লেখকের বর্ণনাভঙ্গি বেশ সুখপাঠ্য। একটানা পড়ে ফেলা যায়। নাক বোঁচাদের প্রতি আলাদা একটা ফ্যাসিনেশন ছোটবেলা থেকেই কাজ করে আমার সেই লক্ষ্যেই জাপান সংক্রান্ত যে কোন কিছু পেলে পড়ে ফেলি। সে জাপানি সাহিত্য হোক কিংবা নন ফিকশন হোক। জাপান কাহিনী মূলত লেখকের দীর্ঘ জাপান জীবনের খণ্ড খণ্ড স্মৃতিচারণ। তার ব্লগ পোস্টগুলোর সংকলন। আমার মত তিনিও হুমায়ূন প্রেমী এক জায়গায় বলেছেন যে একবার ১৮ ঘন্টা টানা ফোনে কথা বলেছেন শুধুমাত্র হুমায়ূন আহমেদের একটা বই নিয়ে। বেশ লেগেছে আমার কাছে। আগামী খণ্ডগুলোও পড়ে ফেলবো।

Free read ↠ PDF, DOC, TXT or eBook ñ Ashir Ahmed

জাপান কাহিনিEd This is very good and a main topic to read the readers are ver. জাপান কাহিনি আশির আহমেদফেসবুকে বোধহয় অনেকেই বেশ কয়েকটি 'জাপান কাহিনি' পড়েছেন। অতঃপর ফেসবুকে পাঠকদের উৎসাহেই নাকি লেখকের বই লেখার উদ্যোগ। আমার কখনো তাঁর কাহিনি পড়া হয়নি ফেসবুকে। বেটার লেট দ্যান নেভার পড়ে ফেললাম জাপান কাহিনি ১ম খণ্ড।খুবই সরল সরেস লেখনী। সুন্দর উপস্থাপন। লেখা পড়েই কেন যেন মনে হচ্ছিল স্টাইলটা অনেকটাই হুমায়ুন লেখনীর মত। যতই এগুলাম বুঝতে পারলাম এর কারণ। লেখক আশির আহমেদ নিঃসন্দেহে একজন হুমায়ুন ফ্যান। তাঁর লেখায় পাওয়া যায় অসংখ্য হুমায়ুনী রেফারেন্স।তা যাই হোক। জাপান নিয়ে অনেক কিছু জানলাম। আক্ষরিক অর্থে ‘অনেক কিছু’। লেখক তাঁর ২৫ বছরের জাপানি জীবনের অভিজ্ঞতার গল্প সত্য ঘটনা গেঁথেছেন।দুই মলাটে আবদ্ধ ২১ টা চ্যাপ্টারে উঠে এসেছে জাপানের আত্মহত্যা ফিউনারেল পার্লার জাপানের সামাজিক শিক্ষা মিডিয়া টয়লেট হট স্প্রিং এবং আরও।আমার প্রিয় দুটি চ্যাপ্টার ছিল জাপানের সামাজিক শিক্ষা ও জাপানিজ মিডিয়া। জাপানের শিক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে আমি বরাবরই ফ্যাসিনেটেড। আহারে কত কিছু যে শেখা যায় এই জাতিটা থাকে। ভালোর উল্টো পিঠে থাকে ভালোর উল্টোটা p জাপানেও আছে কাস্ট সমস্যা কুসংস্কার আর বৃদ্ধাশ্রমের একাকীত্ব। বছরে ৩৩০০০ তরুণ আত্মহত্যা করেন সেখানে।জানলাম বিশ্বের সর্ববৃহৎ টয়লেট ম্যানুফ্যাকচারার জাপানিজ ‘টো টো’ কোম্পানি সম্পর্কে।লেখক কথা প্রসঙ্গে কিছু জায়গায় এঁকেছেন বাংলাদেশের তুলনামূলক চিত্র। সেসব জায়গায় বুক চিরে বেরিয়ে এসেছে একটাই আওয়াজ ‘আহারে আমার দেশটা’। একদিন নিশ্চয়ই আমরা শিখবো। দেখে হোক ঠেকে হোক শিখবো ইন শা আল্লাহ্‌।ভালো বই। পাঁচে দিলাম চার। বাকি ৪ খণ্ড হাতে আছেএগোই D